ঈদযাত্রা শুরু

আর কয়েকদিন পরই পবিত্র ঈদুল ফিতর। পরিবার-পরিজন নিয়ে ঈদে মেতে উঠতে নাড়ির টানে বাড়ি ফিরতে শুরু করেছেন সাধারণ মানুষ।

রোববার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত কমলাপুর স্টেশনে বাড়ি ফেরা মানুষের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। আগে গেলে স্বাচ্ছন্দে যাওয়া যায় বলে যাত্রীরা বলছিলেন।

রোববার দুপুরে সরেজমিনে দেখা গেছে, স্টেশনের প্রতিটি প্লাট ফর্মে নারী-পুরুষ-শিশুরা এসে অপেক্ষা করছেন। আর কোনো ট্রেন আসলে যেন উঠতে প্রতিযোগিতা শুরু হয়ে যায়।

গ্রামের বাড়ি চট্টগ্রাম যাবেন কম্পিউটার বিশেষজ্ঞ আরিফ রহমান। তিনি বলছিলেন, ‘স্ত্রী ও দুই সন্তানকে একটু আগে থেকে পাঠিয়ে দিচ্ছি। কেননা পরে গেলে ঝামেলা পোহাতে হয়। এ কারণে ১ জুন অগ্রিম টিকিট সংগ্রহ করেছি। আর আমি ঈদের একদিন আগে ঢাকা ছাড়বো।’

শাহজাহানপুর থেকে আসা সম্রাট বলেন, ‘দুর্ভোগ এড়াতেই পরিবারকে আগে পাঠিয়ে দিচ্ছি। এ থেকে ঝামেলা মুক্ত হলাম।’

তার মতো অনেকেই এসেছিলেন পরিবারের সদস্যদের ট্রেনে তুলে দিতে। দিন যত ঘনিয়ে আসবে, ভিড় আরো বৃদ্ধি পাবে বলে সংশ্লিষ্টরা জানান।

স্টেশন ম্যানেজার সিতাংশু চক্রবর্তী বলেন, ‘রোববার সকাল থেকে ছেড়ে যাওয়া ট্রেনগুলো তে স্বাভাবিক ভিড় ছিল। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এ ভিড় বাড়তে থাকে। ১২ জুন থেকে ভিড় আরো বাড়বে। এছাড়া সকালে ছেড়ে যাওয়া ট্রেনগুলোর মধ্যে শুধুমাত্র সুন্দরবন এক্সপ্রেস ৩০ মিনিট দেরি করেছে। দেরি করেই স্টেশনে এসেছিল ট্রেনটি। বাকি ট্রেনগুলো সবঠিক সময়ে ছেড়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রোববার বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত প্রায় ৪০টি ট্রেন কমলাপুর স্টেশন ছেড়ে গেছে। তবে কোনো ধরনের সিডিউল বিপর্যয় হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: