প্রথা ভেঙে বিয়ে নিয়ে বিতর্কে সোনাম-আনন্দ

চলতি বছরের ৮ মে আনন্দ আহুজার সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন সোনাম কাপুর। গুরুদুয়ারায় বিয়ে এবং তারপর মুম্বইয়ের দ্য লীলায় ঝলমলে রিসেপশন। সোনাম-আনন্দের বিয়ে উপলক্ষে মুম্বইয়ের পাঁচতারা হোটেলে যেন বসে চাঁদের হাঁট। সবকিছু মিলিয়ে সোনাম কাপুর এবং আনন্দ আহুজার হাই প্রোফাইল বিয়ে নিয়ে সরগরম পেজ থ্রি-র পাতা।

বিয়ে এবং তারপর রিসেপশন সেরে বর্তমানে ফ্রান্সে পাড়ি দিয়েছেন সোনাম কাপুর। আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উত্সব কান-এর রেড কার্পেটে হাঁটতেই ফ্রান্সে রয়েছেন সোনাম। নববধূকে সেখানে পৌঁছে দিয়ে এসেছেন আনন্দ আহুজা নিজে। কিন্তু, সোনাম যখন কানের রেড কার্পেটে হাঁটতে ব্যস্ত, সেই সময় তাঁদের বিয়ে নিয়ে সমস্যা শুরু হয়েছে। অবাক লাগছে শুনে?

ঘটনাটা খুলেই বলা যাক তাহলে। রিপোর্টে প্রকাশ, শিরোমণি গুরুদুয়ারা প্রবন্ধক কমিটির এক প্রাক্তন কর্মীর তরফে অভিযোগ করা হয়েছে, সোনাম-আনন্দের বিয়েতে নাকি নিয়ম ভাঙা হয়েছে। বিয়ে উপলক্ষে যখন গুরুদুয়ারায় হাজির হন সোনাম কাপুর এবং আনন্দ আহুজা, সেই সময় নাকি আহুজার পাগড়ি থেকে রত্ন (পোশাকি নাম কালগি) খুলে নেওয়া হয়নি।

অভিযোগকারীর দাবি, গুরু গ্রন্থ সাহিবের সামনে কখনওই পাগড়িতে রত্ন পরে বসা উচিত নয়। যা শিখ রীতি নীতির বিরুদ্ধচারণ বলেও দাবি করা হয়েছে। আর সেই কারণেই সোনাম কাপুর এবং আনন্দ আহুজার বিয়েতে নিয়ম ভাঙার অভিযোগ করা হচ্ছে। শুধু তাই নয়, সোনাম-আনন্দের বিয়ের সময় অর্থাত ৮ মে শিরোমণি গুরুদুয়ারা প্রবন্ধক কমিটির যে সদস্যরা হাজির ছিলেন, তাঁদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত পদক্ষেপ নেওয়া হোক বলেও দাবি করা হয়েছে।

যদিও, সোনাম কাপুর কিংবা আনন্দ আহুজার তরফে এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করা হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *