ফটো সাংবাদিক শহীদুল আলম নিখোঁজ

৬ আগষ্ট ২০১৮ সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর দৃক গ্যালারিতে এক সংবাদ সম্মেলন করে তিনি জানান, ৫  আগষ্ট ২০১৮ রবিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে ধানমন্ডির ৯/এ সড়কের বাসার চারতলা থেকে শহিদুলকে ধরে নিয়ে যায় ডিবি (পুলিশের গোয়েন্দা শাখা) পরিচয় দেওয়া একদল লোক। তুলে নিয়ে যাওয়ার আগে ওই দলটি ভবনের সিসি ক্যামেরা ভেঙে ফেলে তারা হার্ডডিস্ক নিয়ে যায়।

দৃক ফটোগ্যালারির প্রতিষ্ঠাতা ও ফটো সাংবাদিক শহীদুল আলমকে তাঁর  ধানমন্ডি বাসা থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয় দিয়ে একদল লোক তুলে নিয়ে গিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তাঁর স্ত্রী রেহনুমা আহমেদ।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মানবাধিকারকর্মী খুশী কবির, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আনু মুহাম্মদ, শিরিন হক, এনজিওকর্মী তাহমিনা রহমান, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জুনায়েদ সাকি প্রমুখ।

সম্মেলনে এনজিও কর্মী  শিরিন হক বলেন, ‘আমি কিছু বলতে পারছি না। আমার তো মনে হয় না যা হচ্ছে সেটা দেশের বা সন্তানের ভালো হচ্ছে। ওর আল জাজিরার সাক্ষাৎকারটা নাকি খুব আপত্তিকর তাই ওকে তুলে নেওয়া হয়েছে। আমি সাক্ষাৎকারটা শুনলাম। সেখানে বিশ্লেষণ ছিল। এখন কেউ কি কোনও বিশ্লেষণ করতে পারবে না? তাহলেও গ্রেফতার করা হবে? তাকে অক্ষত অবস্থায় ফিরে চাই। দেশে শান্তি থাকুক সেটাই চাই।’

শহীদুলের আলমের সন্ধানে সারা রাত ডিবি অফিসে বসে থেকেও শহিদুলের ব্যাপারে কোনো তথ্য পাননি বলে জানান স্ত্রী রেহনুমা আহমেদ। । পরবর্তীতে সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ফোন করে রেহনুমা আহমেদকে  ডিবি কার্যালয়ে যেতে বলা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *