সাবেক স্বামী ব্র্যাড পিটেরর বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি

আবেদনময়ী হলিউড অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলি তাঁর সাবেক স্বামী অভিনেতা ব্র্যাড পিটেরর বিরুদ্ধে সন্তানদের ভরণ পোষণ না দেয়ার   অভিযোগ এনেছেন।

ব্র্যাডকে একটি দায়িত্বহীন মানুষ বলে জোলি জানান, ‘‌আমি কখনোই চাইব না, পিটের মতো একজন দায়িত্বজ্ঞানহীন মানুষ আমার সন্তানের দায়িত্ব পাক। শুধু দেখভালই নয় পিতা হিসেবে যে অর্থনৈতিক দায়িত্ব হয়, সেটাও ঠিকমতো পালন করেনি পিট।’

আদালতে জোলি এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন।  ০৭ আগস্ট ২০১৮   মঙ্গলবার আদালতে পেশ করা নথিতে জোলির আইনজীবি সামান্থা ব্লে ডি-জীন লিখেছেন, শিশুদের ভরণপোষণে অর্থ প্রদান করা পিটের একটা সংবিধিবদ্ধ দায়িত্ব। জোলি-পিট দম্পতি আলাদা থাকতে শুরু করার পর থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত পিট সন্তানদের জন্য উল্লেখযোগ্য কোনো সহায়তা প্রদান করেননি ।

দেড় বছর ধরে ব্র্যাড পিট তাঁর ছয় সন্তানের প্রাপ্য টাকা নিয়মিত (ভরণপোষণ খরচ) পরিশোধ করেননি। এজন্য তাঁর সাবেক স্ত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলি আদালতে রিকোয়েস্ট ফর এ কোর্ট অর্ডার (আরএফও) দায়ের করেছেন।

তবে  ৫৪ বছর বয়সী ব্র্যাড পিট এ  অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, তিনি তাঁর সব প্রতিশ্রুতি পূরণ করেছেন। ব্রাডের আইনজীবী জানান, ২০১৬ সালে ছাড়াছাড়ি হয়ে যাওয়ার পর জোলি ও তার ছয় সন্তানের ভরণপোষণের জন্য ১.৩ মিলিয়ন ডলারের বেশি অর্থ দিয়েছেন পিট। এছাড়া নতুন বাড়ি কিনতে জোলিকে আরও ৮ মিলিয়ন ডলার দিয়েছেন।

২০০৫ সালে ‘মিস্টার আন্ড মিসেস স্মিথ ছবির পর থেকে ভক্তরা  এই জুটির নাম রাখে ব্রাঞ্জলিনা। ৯ বছর প্রেম করার পর ২০১৪ সালে বিয়ে করেন ব্র্যাড পিট এবং জোলি, বিয়ের দুই বছর পর ২০১৬ সালে তাদের মধ্যে ডিবোর্স হয়ে যায়। চলছে। জোলি-পিট দম্পতির ঘরে তিনটি ছেলে ও তিনটি মেয়ে রয়েছে। ডিবোর্সের পর থেকে বাচ্চাদের দায়িত্ব কে পাবে এই বিষয়ে এখনও আইনি লড়াই চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *