হলিউডের ফাস্ট অ্যান্ড দ্যা ফিউরিয়াস নিয়ে নির্মিত হচ্ছে ডকুমেন্টারি

হলিউডের ‘ফাস্ট অ্যান্ড দ্যা ফিউরিয়াস’ খ্যাত প্রয়াত তারকা অভিনেতা পল ওয়াকারকে আমরা সবাই চিনি এবার ব্যাক্তি ওয়াকারের সাথে পরিচিত করাতে আসছে পল ওয়াকারকে নিয়ে নির্মিত ডকুমেন্টারি ‘আই এম পল ওয়াকার’।

 

১৯৮৬ সালে চলচ্চিত্র ‘মনস্টার ইন দ্য ক্লোজেট’ দিয়ে হলিউড পা রাখেন  পল । পরর্বতীতে ফাস্ট অ্যান্ড দ্যা ফিউরিয়াস সিরিজের ব্রায়ান ও’কনার চরিত্রে দুর্দান্ত অভিনয় করে ভক্তদের কাছ থেকে মন কেড়ে নেন এ তারকা।

 

ক্যামেরার পিছনে কেমন ছিলেন এ্যাকশন খ্যাত এই তারকার জানতে চাওয়া হয়েছে  ওয়াকারের ফ্যামিলি, বন্ধু, আত্মীয় আর তাঁর সহ অভিনেতাদের কাছ থেকে। ডকুমেন্টারিতে পল ওয়াকারকে নিয়ে কথা বলেছেন অভিনেতা টাইরেস গিবসন, পরিচালক রব কোহেন, ওয়াইন ক্র্যামার। পরিবার সদস্য কডি ওয়াকার, ক্যালেব ওয়াকার, অ্যাশলি ওয়াকার ও মা শেরিল ওয়াকার ।

ডকুমেন্টারিতে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে সার্ফিং, ভ্রমণ, প্রিয় একজন মানুষকে যিনি আর পাঁচটা বাবার মত নিজের মেয়ের সাথে সময় কাটাতে ভালোবাসেন। যিনি তারকা খ্যাতি থেকে দুর্দশাগ্রস্থ মানুষকে সাহায্য করতে বেশি ভালোবাসতেন।

তাঁর চাচা রিহেট পলকে নিয়ে বলেন,’মানুষকে সাহায্য করতে এবং তাদের জীবনে পরিবর্তন আনতে ব্যাক্তিগত ভাবে সে অনেক কিছু করেছে।‘

 

ডকুমেন্টারিটি পরিচালনা করেছেন অ্যাড্রিয়ান বুতেনহুইস । আমেরিকান ফিল্ম প্যারামাউন্ট থেকে এ ডকুমেন্টারি মুক্তি পাবে আগামী ১১ আগস্ট।

 

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ৩০ নভেম্বর তারিখে ওয়াকার এবং তার বন্ধু রজার রোডস্‌ফিলিপাইনের টাইফুন ‘হাইয়ান’ দুর্গতদের জন্য ওয়াকারের নিজস্ব সংস্থা ‘রিচ আউট ওয়ার্ল্ডওয়াইড’ এর একটি অনুষ্ঠানে থেকে ফিরে আসার সময় চালক নিয়ন্ত্রণ হারালে গাড়িটি রাস্তার পাশের লাইট পোস্ট ও গাছের সাথে আঘাত করে এবং তাতে আগুন ধরে যায় । ফলে মাত্র ৪০ বছর বয়সে ভক্তদের কাঁদিয়ে চিরবিদায় নেন মেধাবী এই তারকা।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *